ফারজানা রাহার গুচ্ছ কবিতা

127

অথচ আমাকেই বুঝো না

তুমি প্রেম বোঝো
অথচ ভালোবাসাটা বোঝো না।

তুমি অভিমান বোঝো
অথচ অবহেলাটা বুঝতে চাও ই না।

তুমি রাগ বোঝো
অথচ দীর্ঘশ্বাসের কারণ গুলো
বোঝো না ।

তুমি আকাশ দেখো
অথচ জ্বল জ্বল তারাদের ভেসে বেড়ানোটা দেখো না ।।

তুমি নীল মেঘ পছন্দ করো
কিন্তু সোনালী মেঘের কি যে মায়া
তা বোঝো না ।।

তুমি মন বোঝো
অথচ আমাকে বুঝতেই চাওনা ।।

তোমাকে চাই

তুমি জিজ্ঞেস করেছ কি চাও
উত্তরে তোমাকে চাই!
তুমি আবারও জিজ্ঞেস করেছিলে কি চাও
উত্তর শুধু তোমাকে চাই।
শেষ একবার জিজ্ঞেস করেছিলে কেন চাও
উত্তরে ভালোবাসি বলেই চাই এত করে।।

কেন এত ভালোবাসো
জটিল প্রশ্ন করলে
উত্তর নিশ্চয় জটিল হবে??
ভালোবাসি কেন জানিনা,
তোমার সাথে আকাশ দেখতে ভালো লাগে তাই ভালোবাসি।
তোমার সাথে পাশাপাশি একসাথে ক্লান্ত দুপুরে হাটতে ভালো লাগে তাই ভালোবাসি।

ভালোবাসি কারণ জানা নেই তবুও ভালোবাসি।

তুমি সর্বজয়া

তুমি নারী যেমন ঘর সামলাও হাসিমুখে
তেমনি বাহির সামলাও সাহসীকতা দিয়ে,
তাই তোমার এগিয়ে চলার পথে
এসে যায় অনেক বাধাবিপত্তি কিংবা বিপদ !!

তুমি নারী যেমন সাজতে বেশি ভালোবাসো
তেমন আবার বিপদে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে
তার চেয়ে অধিক ভালোবাসো !
তুমি ই নারী একজন অন্যরকম তাই
তোমার সাথে হয়না আর কারো তুলনা ।।

তুমি নারী যেমন অন্যায়ের প্রতিবাদে কণ্ঠ সর উঁচু করো
আবার তেমন প্রতিবাদে হাতের চূড়িকেও হাতিয়ার করো,,
তুমি ই তো পারো সব মায়াময় করতে দেখতে
তোমার মতো করে ভাবতে কার নেই আর সাধ্য ।।

তুমি ই সেই নারী যার সাহসের ভার অধিক,
তুমি ই সেই নারী যার অসহায় মানুষ গুলোর প্রতি অসীম ভালোবাসা রেখেছো আগলে !
তুমি ই সেই নারী যার প্রতিবাদের ভাষা নম্র,
তুমি ই সেই নারী যার ভরসায় হাজারো মানুষ ভক্ত ।।

কখনো এই শহরে এসোনা

আমার শহরে কখনো এসোনা তুমি
ভুলভালে হয়তো আমাদের দেখা হয়ে যাবে
অলিগলি তে…..
তখন পাশ কাটানোর নামে যদি আবার নতুন ভাবে
গড়ে উঠে সব প্রয়োজন নেই ।।

আমার নামে তুমি আর পোষ্টবক্সে রোজ চিঠি জমা
করো না কারণ আমি ঠিকানাটা বদলে নেবো
হুট করে যদি কখনো আবার তোমার চিঠি আমার ঠিকানায় চলে আসে নীল খামে……?
তখন মন উত্তর দেবার জন্য ছটফট করবে ভীষণ থাক দরকার নেই ।।

আমার প্রিয় গানে আমাকে খুঁজবে না আর
প্রিয় লিস্ট টা অপ্রিয় তে ভরে উঠুক
কখনো মনে পরে গেলে গানের কথায়
তখন তো চাইবে আমি ফিরি নতুন রুপে একদম ই লাগবেনা ।।

আমি নিখোঁজ ই থাকি নাহয় তোমার থেকে
প্রিয় থেকে দূরে থেকে অপ্রিয় সেজে
কিংবা হলুদ খাম পাল্টে নীল খামের ভাঁজে
গলির মোর ভুলে অন্য গলিতে হেটে ।।

তোমার মতো করে

আমি তো তোমার মতো করে
কবিতায় অন্যকাউকে নিয়ে
ছন্দ মেলাতে পারিনা !
আমার কবিতারা শুধু তোমাকে নিয়েই
প্রেমালাপে বেশ মগ্ন ।।

আমি তো তোমার মতো করে
অভিমানে ভুলে যেতে পারিনা
আমার অভিমানেও শুধু তুমি থাকো
ভালোবাসায় মিশে একাকার হয়ে ।।

আমি তো তোমার মতো করে
অভিযোগে বাহানা খুঁজি না
আমার অভিযোগ গুলোও
কেবল তোমাকে নিয়েই ।।।

আমি তো তোমার মতো করে
হারিয়ে গেলে নতুন কাউকে খুঁজিনা
তোমার হারিয়ে যাওয়াতেও
তোমাকে ফিরানোর জন্য আমার কতশত চেষ্টা ।।

আমি তো তোমার মতো করে
ভালোবাসতে পারি না
তবে আমার সব ভালোবাসা
কেবল তোমাতেই ঘিরে ।।