হলিউড সিনেমা ‘টেনেট’ রিভিউ

318

আহমেদ শাকিল

টেনেট দেখার সময় আমার অবস্থা ঠিক এমনই হয়েছিলো। মাথা এখনো ঘুড়তেছে বিশ্বাস না হলে দেখেন, মগজ এর অবস্থা। সাইন্সের পোলাপানদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। নোলান নাকি এক দশক ধরে টেনেটর কেন্দ্রীয় ধারণাগুলি নিয়ে আলোচনার পরে চিত্রনাট্য রচনায় নোলান পাঁচ বছরেরও বেশি সময় নিয়েছিলেন।

তারপর ২০১৯ সালের মার্চে এর কাস্টিং শুরু হয়েছিল, এবং মে মাসে ডেনমার্ক, এস্তোনিয়া, ভারত, ইতালি, নরওয়ে, যুক্তরাজ্য, এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্থানে প্রধান চিত্রগ্রহণের কাজ শুরু হয়েছিল। চিত্রগ্রাহক হইতে ভান হইতেমা পর্যন্ত দৃশ্যধারণে ৭০ মিমি এবং আইএমএক্স ব্যবহার করেছিলেন। সময় হেরফেরের দৃশ্যগুলি সামনে-পেছনে উভয় দিকেই ধারণ করা হয়েছিল। এতে একশো জলযান সহ কয়েক হাজার এক্সট্রা ব্যবহার করা হয়েছে।

কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে তিনবার ডেট পেছানোর পর, ২০২০ সালের ২৬ আগস্ট যুক্তরাজ্যে, এবং ৩ সেপ্টেম্বর মার্কিনযুক্তরাষ্ট্রে আইএমএক্স, ৩৫ মিমি এবং ৭০ মিমি সংস্করণে মুক্তি পায়। মহামারীর পরে এটি ছিল হলিউডের প্রথম টেন্ট-পোল এবং বিশ্বজুড়ে ৩৫৯ মিলিয়ন ডলার আয় করে এটি ২০২০ সালের চতুর্থ সর্বোচ্চ-উপার্জনকারী চলচ্চিত্র হিসেবে বিবেচিত হয়েছে। তবে এর ব্যয়বহুল উৎপাদন এবং বিপণনের ব্যায়ের কারণেও এটি সম আয়-ব্যায় পেরোতে ব্যর্থ হয়েছিল, পরিবেশক ওয়ার্নার ব্রস. পিকচার্সকে ১০০মিলিয়নের ক্ষতি বহন করতে হয়েছিল। চলচ্চিত্রটি সমালোচকদের কাছ থেকে সাধারণত ইতিবাচক পর্যালোচনা পেয়েছিল, যারা অভিনয়, নির্মাণ ব্যায় এবং চাক্ষুস দৃশ্যের প্রশংসা করেছিল, যদিও কিছু বিভ্রান্তিকর প্লট এবং শব্দ মিশ্রণের সমালোচনা করা হয়েছে।

কাহিনী সংক্ষেপ
একজন সিআইএ প্রতিনিধী, কিয়েভ অপেরা হাউসে একটি আন্ডারকভার অপারেশনে অংশ নেয়। সেখানে একজন মুখোশধারী সৈনিক লাল ট্রিনকেট এর মতো একটি জিনিষ জব্দ করে। তারপর সে কিছু ভাড়াটে মাফিয়া সদস্যের দ্বারা বন্দী হয়। সায়ানাইড সেবনের আগ পর্যন্ত সে নির্যাতন সহ্য করে। জ্ঞান ফেরার পর জানতে পারে যে সায়ানাইড ছিল তার সততার একটি পরীক্ষা; তার দল মারা গেছে এবং সবধরনের চিহ্নগুলিও হারিয়ে গেছে।

টেনেট নামে একটি গোপন সংস্থা তাকে নিযুক্ত করে। তাদের বিজ্ঞানী তাকে “উল্টানো” রুদ্ধতাপ সহ বুলেট এবং অন্যান্য বস্তু দেখায় যেটি দ্বারা তারা সময়ের সাথে পিছনে যেতে সক্ষম। তিনি বলেন যে তারা ভবিষ্যতের তৈরি মানে… (আগত যুদ্ধের প্রতিরূপ), এবং একটি অস্ত্র রয়েছে যা অতীতকে মুছে ফেলতে পারে। একটি গোপন সূত্রে জানা যায় যে.. অস্ত্র ব্যবসায়ী প্রিয়া সিংয়ের নিকট বুলেটটি রয়েছে। পরে সে আবিষ্কার করে যে প্রিয়া টেনেটের সদস্য। রুশ অলিগ্রাচ আন্দ্রেই স্যাটার কর্তৃক তার বুলেটগুলি ক্রয় করা হয়েছিল, এবং তারপরে সময় এর উল্টোদিকে পাঠানো হয়। এগুলি হয়তো আপনার নিকট সাইন্সের কোনো বই পড়ার মতো মনে হতে পারে। কিন্তু ‘নোলান্দা’ তার চিন্তাশক্তির বাহিরে গিয়ে সেটিকে সবার সামনে একটি সিনেমায় প্রকাশ করেছেন। এটাই উনার বৈশিষ্ট্য।

মুভির দৈর্ঘ্য : ১৫০ মিনিট
ভাষা : ইংরেজি

অনি/সিনেটিভি