‘দ্বিতীয় পুরুষ’ সিনেমার রিভিউ

325

রাহিন চৌধুরী

২০১১ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ২২শে শ্রাবণ যাদের রাতের ঘুম হারাম করেছিল তাদের জন্য এর সিকুয়েল দ্বিতীয় পুরুষ অনেক অধীর আগ্রহের ছিল।সে সকল আগ্ৰহীদের আগ্ৰহ মনে হয় খুব একটা বিফলে যায় নি।

কিন্তু দুঃখের বিষয় হল যে, দ্বিতীয় পুরুষ সেই থ্রিলিং নিয়ে মুভিটি শুরু করতে পারে নি।মুভির প্লট সম্পর্কে কথা বলার আগে কথা বলে নেই অভিনয় নিয়ে, মুভিটি এর আগের পর্ব (বাইশে শ্রাবণ)এর মতো অসাধারণ ছিল না।

কিন্তু, অনির্বাণ ও পরমব্রত অনেক ভালো অভিনয় করেছে। কিন্তু দ্বিতীয় পুরুষে রাইমা সেনকে স্কিনে খুব অল্প সময়ের জন্য দেখা গিয়েছিল। আবির ও তার চরিত্রে কোনো খুঁত রাখেনি।

কাহিনী সংক্ষেপে :

সাল তখন ১৯৯৩। তিনটি খুন হলো কলকাতার চায়নাটাউনে।আর খুনির নাম ছিল খোকা, তাকে সহজেই পুলিশ ধরে নিল।পরে তাকে পঁচিশ বছরের জেল দেওয়া হয়।
২০১৯ সালে খোকা আবার জেল থেকে ছাড়া পায়। তখন, আবার একটা খুন হয়, ঠিক খোকার পদ্ধতিতে। আবার, তাকে ধরার জন্য দায়িত্ব দেওয়া হল অভিজিৎ কে ।
কিন্তু না, খোকা কোনো ভাবেই থামছে না, একের পর এক লোমহর্ষক খুন করেই যাচ্ছে। এখন তাকে থামাতে হলে তাকে গ্ৰেফতার করতেই হবে।

খোকাকে গ্রেফতার করতে গিয়ে, অভিজিৎকে যে এতো বড় একটা সত্যের সম্মুখীন হতে হবে যে ?সে সেটা ভাবতে ও পারেনি। আর কী ছিল সেই সত্যিটি?

জানতে হলে আপনাদের দেখতে হবে এই মুভিটি…

অনি/সিনেটিভি